আজ, বুধবার | ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



চকরিয়ায় প্রবাসী পরিবারের চলাচল পথের মাটি কেটে বিলীন ও কাটা তারের বেড়া দিল চাঁদাবাজচক্র

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ
চকরিয়ায় দাবীকৃত চাঁদা না দেয়ায় এক সৌদি প্রবাসী পরিবারের চলাচল পথের মাটি কেটে বিলীন করে দিয়ে পথে কাটা তারের বেড়া দিয়েছে ভূমিদস্যু চাঁদাবাজচক্র। ৯অক্টোবে’২২ইং সকাল ১১.০০ ঘটিকার দিকে উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের জঙ্গলকাটা জলুব্রিজের পূর্ব পাশ্বে প্রবাসীর বসত ভিটার চলাচলের রাস্তায় ঘটেছে এ ঘটনা। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে প্রবাসী পরিবারকে চলাচল পথের জিম্মিদশা থেকে উদ্ধার করেছে।

প্রবাসী নবীর হোসাইনের স্ত্রী হানুয়ারা বেগম অভিযোগ করে জানান, তার স্বামী (সৌদি আরব) প্রবাসে থেকে পরিবারের জীবিকা নির্বাহ করেন। কিন্তু স্বামী সৌদি আরবে থাকার সুযোগে দূর্লোভের বশবর্তী হয়ে একটি চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসী চক্র প্রবাসীর পরিবারকে চলাচল পথে বাধা দিয়ে অন্যায়ভাব চাঁদা দাবী করে। ফলে এলাকায় বসবাসসহ ভবিষ্যৎ শান্তির আশায় অভিযুক্ত চাঁদাবাজ চক্রকে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দেন। টাকা পাওয়ার পর তারা কিছুদিন নিরব থাকিলেও সম্প্রতি সময় থেকে আরো ২ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবী করে। দাবীকৃত চাঁদার টাকা না দিলে বসত ভিটা থেকে বিতাড়িত করবে ও চলাচল পথ বন্ধ করে দিবে মর্মে ফের হুমকি প্রদান করেন। সর্বশেষ ৯অক্টোবে’২২ইং সকাল ১১.০০ ঘটিকার দিকে অভিযুক্তদের মধ্যে কোনাখালী ইউপির ৮নং ওয়ার্ড দক্ষিণ জঙ্গলকাটা গ্রামের আবুল কালামের পুত্র শহিদুল ইসলাম প্র: কালাইয়া চোরা, জয়নাল আবেদীনের পুত্র এস্তাহার উদ্দিন আশিক প্রকাশ: এস্তাহার ডাকাত, দুদু মিয়ার পুত্র হান্নান প্র: হান্না চোরা, জয়নাল আবেদীনের পুত্র কফিল উদ্দিন, আবু তাহেরেে পুত্র ছাদেক, আবদুল হান্নানের পুত্র মেহেদী, আরফাত, ৯নং ওয়ার্ডের জঙ্গলকাটা গ্রামের মৃত মোক্তার আহমদের পুত্র আক্তার হোসাইন মনু, রুবেল, বাটু সহ অজ্ঞাতনামা আরও ১৫/২০ জনের সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে দেশীয় তৈরী অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ২ লক্ষ টাকা চাঁদা চেয়ে না পেয়ে প্রবাসী পরিবারের চলাচল পথে কাটা তারের বেড়া দিয়ে অবরুদ্ধ করে ও চলাচল পথের মাটি কেটে মাটির বিলিন করে দেয়। এতে প্রবাসী পরিবারের অন্তত ৩ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে দাবী করের প্রবাসীর স্ত্রী হানুয়ারা বেগম।

বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে মোবাইল ফোনে চকরিয়া থানাকে অবগত করলে মাতামুহুরী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের কর্তব্যরত উপপরিদর্শক মেজবাহ উদ্দিনের নেতৃত্বে পুলিশদল ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে কাটা তারের বেড়া অপসারন করে প্রবাসী পরিবারকে অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে মুক্ত করেন। বর্তমানেও অভিযুক্তরা দাবীকৃত চাঁদার টাকার জন্য হুমকি ধমকি, স্বপরিবারে হত্যা, লাশ গুমসহ বসত ভিটা হতে উচ্ছেদের ধমকি অব্যাহত রেখেছে। ক্ষতিগ্রস্ত প্রবাসী পরিবার অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আদালতে মামলার প্রস্তুতি নিয়েছেন বলে জানান। তারা প্রশাসনের কাছে আইনী সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আহবান জানান।