আজ, সোমবার | ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



চকরিয়ায় গাড়ী ভাড়ায় না যাওয়ায় টমটম চালককে বেধম মারধর, টাকা ও মোবাইল সেট লুট

চকরিয়া অফিসঃ
চকরিয়ার বদরখালীতে কথামত টমটম গাড়ী ভাড়ায় না যাওয়ায় গাড়ী চালককে বেধম মারধর করা হয়েছে। এসময় ছিনিয়ে নিয়েছে স্থানীয় ব্যবসায়ীর পন্যক্রয়ে পাঠানো নগদ টাকা ও মোবাইল সেট। উপজেলার বদরখালী ইউনিয়নের গণি কমপ্লেক্সের সামনে চলাচল রাস্তায় ২০ জানুয়ারী বিকাল ৩.২০ ঘটিকার দিকে ঘটেছে এ ঘটনা।

এঘটনায় পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের দরবেশকাটা গ্রামের মৃত মনির আহামদের পুত্র আবদুল্লাহ আল নোমান বাদী হয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে; বদরখালী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের কলেজ পাড়া গ্রামের শিল্পী ইছাহাক আহামদের পুত্র মোঃ কাজল, বদরখালী শহরিয়া পাড়া গ্রামের ডাঃ অরুন শর্মার পুত্র অন্তর শর্মা, বদরখালী মগনামা পাড়া গ্রামের আবু ছালেকের পুত্র অমিত হাসান, বদরখালী মাতারবাড়ী পাড়া গ্রামের মৃত নেজাম উদ্দিনের পুত্র মোঃ তারেক সহ অজ্ঞাত কয়েকজনকে।

অভিযোগে জানাগেছে, বাদীর ভাতিজা আরফাত হোসেন টমটম গাড়ী চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। তাকে জনৈক আবু হানিফ তাহার মুদির দোকানের মালামাল খরিদের জন্য নগদ ২৫ হাজার টাকা নিয়ে পাঠান। একই সাথে বাদীর ভাতিজী ইয়াছমিন ফাতেমার একটি ভীভু মোবাইল সেট ফ্লাশ করার জন্যও পাঠান। এ অবস্থায় টমটম গাড়ী নিয়ে রাস্তায় দাঁড়ানো আরফাত হোসেনকে অভিযুক্তরা টুটিয়াখালী এলাকায় গাড়ী নিয়ে রিজার্ভ ভাড়ায় যাওয়ার জন্য বলে। তাদের কথা অনুযায়ী টমটম নিয়ে ভাড়ায় না যাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে হামলা চালিয়ে বেধম মারধরে গুরুতর আহত করে টমটম চালককে। এক পর্যায়ে উল্লেখিত প্রেরিত টাকা ও মোবাইল সেট ছিনিয়ে নিয়েছে অভিযুক্তরা। পরে স্থানীয়রা এগিয়ে এসে আহত আরফাতকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

চকরিয়া থানার ওসি (তদন্ত) অরুপ কুমার চৌধুরী জানান, ঘটনার বিষয়ে দায়েরকৃত অভিযোগটি সত্যতা যাছাই পূর্বক ব্যবস্থা নেয়ার জন্য একজন সাব ইন্সপেক্টরকে দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।