আজ, সোমবার | ২২শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



সাজাসহ গ্রেপ্তারী পরোয়ানা নিয়ে তথ্যগোপন করে বদরখালী সমিতির পরিচালক পদে ফরম নিলেন শাকিল

চকরিয়া অফিসঃ
অর্থদন্ড, সাজা ও গ্রেপ্তারী পরোয়ানা থাকা সত্ত্বেও তা গোপন করে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখকে ফাঁকি দিয়ে এশিয়ার অন্যতম বৃহৎ সমবায় প্রতিষ্ঠান চকরিয়ার বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির পরিচালক পদে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছেন সাহাব উদ্দিন শাকিল।
এনিয়ে বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতি নির্বাচন কমিটি/২০২২ এর সভাপতি ও চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবরে লিখিত অভিযোগ করেছেন। সমিতির সভ্য (সদস্য) বদরখালী ইউনিয়নের ২নং ব্লক কুতুব নগর পাড়া গ্রামের মৃত সিরাজ আহমদের পুত্র ছরওয়ার উদ্দিন বাদী ২৪আগস্ট এ অভিযোগটি করেন। এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে; বদরখালী ১নং ব্লক কুতুবদিয়া পাড়া গ্রামের মাষ্টার আবদু ছালামের পুত্র শাহাব উদ্দিন শাকিলকে।

অভিযোগে জানান, বাদী অভিযুক্ত শাকিলের কাছ থেকে ৩ লাখ ৮০টাকা পাওনা রয়েছেন। উল্লেখিত টাকা পরিশোধের নিমিত্তে একটি চেক প্রদান করেন। পরবর্তীতে চেকের টাকা উত্তোলনের জন্য ব্যাংকে
জমা প্রদান করিলে অপর্যাপ্ত তহবিলের কারণে প্রত্যাখান হওয়ায় তৎ বিষয়ে শাকিলের বিরুদ্ধে এন.আই.এ্যাক্টের ১৩৮ ধারায় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত, চকরিয়ায় সি.আর- ১৩৬৫/১৬নং মামলা দায়ের করলে তাহা বিচারের নিমিত্তে যুগ্ম জেলা জজ ১ম আদালত, কক্সবাজার-এ প্রেরণ করা হয়। পরে তা এসটি- ৩০৭/১৮নং মামলা হিসেবে বালামভুক্ত
হয়ে বিজ্ঞ আদালতে বিচার কার্য সম্পন্ন হয়। আদালত চলতি সরের ২৫জানুয়ারী ২৮নং আদেশমূলে বিবাদী শাকিলকে দোষী সাব্যস্থক্রমে ৫ মাসের কারাদন্ড সহ ৩,৮০,০০০ টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত করেন। বর্তমানে আসামীর বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানা সহ গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী রয়েছে। তা সত্ত্বেও আসামী দেশের প্রচলিত আইন-কানুনকে তোয়াক্কা না করে এতদ্বঞ্চলের বৃহত্তম বদরখালী সমবায় কৃষি ও উপনিবেশ সমিতির আসন্ন ২৪সেপ্টম্বর’২২ নির্বাচনে পরিচালক পদে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ ও দায়ের করেছেন। যাহা সম্পূর্ণ আইনের পরিপন্থি হয়। বাদী ছরওয়ার উদ্দিন
ন্যায় বিচারের স্বার্থে সাজা পরোয়ানা সহ গ্রেপ্তারী পরোয়ানাভুক্ত পলাতক আসামী শাকিলের দায়েরকৃত নমিনেশন বাতিল পূর্বক তাকে আইনের আওতায় এনে
পাওনা টাকা উদ্ধারে প্রশাসনসহ আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হস্তক্ষেপ কামনা করেন।