আজ, সোমবার | ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ২০শে ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ



ভূমিদস্যুরা ভুক্তভোগী সেজে সংবাদ সম্মেলন, শ্রমিক নেতা নুরুল হকের প্রতিবাদ

অবৈধ জবরদখল ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন লোহাগাড়া উপজেলা জাতীয় শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক নুরুল হক নুনু। শনিবার (০৩ ডিসেম্বর) দুপুরে উপজেলার পুরাতন থানা এলাকায় শ্রমিক নেতা নুরুল হক নুনুর অফিসে এ পাল্টা সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। নুরুল হক নুনু চট্টগ্রাম জেলা ট্রাক ও কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির কার্যকরি কমিটির সভাপতি।

পাল্টা সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ভুক্তভোগী ও শ্রমিক নেতা নুরুল হক নুনু। লিখিত বক্তব্য তিনি বলেন, লোহাগাড়া মৌজার বি.এস রেকর্ডীয় মালিক আলী হোসেনের ওয়ারিশ থেকে দেড় বছর আগে আমি ৮ একর ৮২ শতক জমি ক্রয় করি। সেই থেকে জমির ভোগদখলে স্থিত রয়েছি। কিছুদিন আগে এম এ আজিজ সহ একদল সন্ত্রাসী লোক আমার দখলীকৃত সম্পত্তি জবরদখলের চেষ্টা চালায়। স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে সেদিন কাজ বন্ধ হয়। এরপর থানা পুলিশ সমাধানের জন্য ৮/১০ বার শালিশী বৈঠকের চেষ্টা করলেও এম এ আজিজ বিভিন্ন তাল-বাহানার মাধ্যমে বৈঠকে হাজির হয়নি।

বর্তমানে জায়গাটি সংস্কারের জন্য আমি কাজ করতে গেলে স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে আমাকে কাজ বন্ধ রাখার অনুরোধ জানায়। আমি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হয়ে কাজ বন্ধ রাখি। কথা ছিল উভয় পক্ষে কাগজ নিয়ে বসে একটা সমাধান করবে। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় তারা বৈঠকে না বসে তার স্ত্রী শামসুন্নাহারকে দিয়ে আমাকে হেয়-প্রতিপন্ন ও রাজনৈতিক ইমেজ ক্ষুণ্ন করার জন্য সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে আমার বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেন।

জায়গাটি আমার বা তাদের বললে তো হবেনা। জায়গাটি কার সেটা তো কাগজে বলবে। তারা যদি কাগজ দেখাতে পারে তাহলে জায়গা তাদের দিয়ে দিতে আমার কোন
আপত্তি নেই। সংবাদ সম্মেলনে ভুক্তভোগী পরিবারের কামাল হোসেন, জামাল হোসেন, নাছির উদ্দীন, নুর বেগম, নুর জাহান, জাহানারা বেগম উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা এইচ এম গনি সম্রাট, মিয়া মুহাম্মদ শাহজাহান, ছাত্রলীগ নেতা বোরহান ছোবহান সহ স্থানীয় সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে শুক্রবার বিকেল পাঁচটার দিকে উপজেলা সদরের দরবেশহাট রোডে একটি ভবনে সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী ব্যবসায়ী এম এ আজিজের স্ত্রী শামসুন্নাহার। তারা এই শ্রমিক নেতার বিরুদ্ধে জমি দখলের অভিযোগ করেন।