আজ, বুধবার | ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



চকরিয়ায় বাড়ি ভেঙ্গে পূণনির্মাণ করতে গিয়ে পূর্বশত্রুতার জের ধরে বসতবাড়ি পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ
চকরিয়ায় বাড়ি ভেঙ্গে পূণনির্মাণ করতে গিয়ে পূর্বশত্রুতার জের ধরে আগুনে বসতবাড়ি পুড়িয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। আগুনে ঘরে থাকা কাঠের ফার্নিচার, বেড, বালিশ ও বিভিন্ন প্রকারের কাপড়-চোপড় এবং ক্রোকারিজ সরঞ্জামাদিসহ ঘরের যাবতীয় আসবাবপত্র সম্পূর্ণ রূপে পুড়ে আনুমানিক ১,১০,০০০ টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে বলে দাবী করেছেন। উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের এস.এম.চর, চরপাড়া গ্রামে ১১এপ্রিল’২২ইং রাত আনুমানিক ১১:৩০ ঘটিকার দিকে ঘটেছে এ ঘটনা। এনিয়ে বাড়ি মালিক ওই গ্রামের
মৃত হাজী মােজাফফর আহমদের পুত্র মােঃ বেলাল হােছাইন (৫২) বাদী হয়ে লিখিত এজাহার দায়ের করেছেন। এতে আসামী করা হয়েছে চকরিয়া পৌরসভার কোচপাড়া, ৮নং ওয়ার্ডের মােহাম্মদ আলীর পুত্র মােঃ সােহেল ও মােঃ রুবেল সহ ৫জনের উল্লেখ পূর্বক আরাে ৩/৪ জনকে অজ্ঞাতনামা দেখানো হয়েছে।

বাদী বেলাল অভিযোগে জানান, তার পৈত্রিক ওয়ারিশী বসত ভিটার পুরাতন ঘর ভেঙ্গে নতুন পাকা ঘর নির্মাণ করার জন্য উঠানের একপাশে ১টি টিনের ছাউনী ও টিনের বেড়ার বসত ঘর তৈরী করে ঘরের কাঠের ফার্নিচার, বেড, বালিশ ওবিভিন্ন প্রকারের কাপড়-চোপড় এবং ক্রোকারিজ সরঞ্জামাদিসহ যাবতীয় আসবাবপত্র ঘরে স্তুপ করে রাখেন। ঘটনার দিন ১১এপ্রিল’২২ইং তার ব্যক্তিগত কাজে বাহিরে যাওয়ায় বসত ঘরে তার জেঠাত ভাই মওলানা মােঃ ইউনুছকে ঘরের মালামাল পাহারা দেওয়ার জন্য দায়িত্ব দিয়ে রাখেন। এদিন রাত আনুমানিক ১১:৩০ ঘটিকার সময় তার (বাদী) অনুপস্থিতিতে জেঠাতাে ভাই মাওলানা মােঃ ইউনুছ উক্ত ঘরে খাটের বিছানায় ঘুমানো অবস্থায় আসামীগণ পারিবারিক পূর্ব শত্রুতার আক্রোশে হাতে বন্দুক, ধারালাে দা, কিরিচ, লােহার রড, লােহার হাতুড়ি ও লাঠি ইত্যাদি দেশীয় মারাত্মক অবৈধ অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে পরিকল্পিতভাবে গােপনে ঘরের টিনের দরজা খুলে ঘরে অনধিকার প্রবেশ করে। ওই সময় মাওলানা মােঃ ইউনুছ এর ঘুম ভেঙ্গে গেলে বিছানা থেকে উঠে বিদ্যুৎ বাতির আলােতে আসামীগণকে দেখে চিনতে পারেন। ওই সময় তিনি চিৎকার করে এতরাতে ঘরে অনধিকার প্রবেশের কারণ জিজ্ঞাসা করিলে, আসামীগণ তাহাকে মারধর করিতে উদ্যত হয়ে মৃত্যুর ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ঘরে অবরুদ্ধ করে। এক পর্যায়ে রাখে। মাওলানা মােঃ
ইউনুছ শুয়ে থাকা খাটে, বেড-বিছানায় ও ঘরের ড্রপে থাকা উল্লেখিত ফার্নিচার, কাপড়-চোপড়সহ যাবতীয়
আসবাবপত্রে আসামীদের আনিত প্লাস্টিকের বােতল ভর্তি পেট্রোল ছিটিয়ে গ্যাস লাইটের আগুন ধরিয়ে দেয়। আগুন ধাও-ধাও করে জ্বলে উঠলে, আসামীগণ মাওলানা মােঃ ইউনুছকে টানা-হেঁচড়া করিয়া ঘরের বাহিরে নিয়ে আসে এবং তাহার সর্বশরীরে কিল, লাথি, ঘুষি মেরে আহত করে ও হুমকি-ধমকি দিয়ে আসামীরা চলে যায়। এসময় মাওলানা মােঃ ইউনুছের চিৎকারে আশে-পাশের লােকজন টর্চের আলাে নিক্ষেপ
করে ও বসত ভিটার বিদ্যুৎ বাতির আলােতে পালানোর সময় আসামীদের চিনতে পারেন।
উপস্থিত লােকজন অনেক চেষ্টা করেও আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে চকরিয়া ফায়ার সার্ভিস ও ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করলে, ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ ও চকরিয়া থানা পুলিশ জরুরী ভিত্তিতে ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। আগুনে ঘরে থাকা কাঠের ফার্নিচার, বেড, বালিশ ও বিভিন্ন প্রকারের কাপড়-চোপড় এবং ক্রোকারিজ সরঞ্জামাদিসহ ঘরের যাবতীয় আসবাবপত্র সম্পূর্ণ রূপে পুড়িয়া আনুমানিক ১,১০,০০০ টাকার ক্ষতিসাধন হয়।
চকরিয়া থানার ওসি চন্দন কুমার চক্রবর্তী বলেন, ঘটনার বিষয়ে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে।আসল রহস্য কি তদন্ত করে বের করা হচ্ছে।