আজ, মঙ্গলবার | ২১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



এবার সাবেক এমপি জাফরের হুমকির শিকার হলেন চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতিসহ ১৫ সাংবাদিক

চকরিয়া (কক্সবাজার) প্রতিবেদক
এবার চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতিসহ ১৫ জন সাংবাদিককে হুমকি দিলো সাবেক এমপি ও চকরিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জাফর আলম ও তার সহযোগীরা।
মঙ্গলবার (৩০ এপ্রিল) রাত সোয়া ১১ টায় থানা মসজিদের সামনে হুমকি দিলে মধ্যরাতে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) দায়ের করেছেন চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এম জাহেদ চৌধুরী।

জিডিতে বাদী দাবী করেন, পেশাগত দায়িত্ব পালন ছাড়াও দিনে সহকর্মী ও প্রেসক্লাবের যুগ্নসম্পাদক মোহাম্মদ উল্লাহকে মারধরের ঘটনার বিষয়টি থানা পুলিশকে অবহিত করতে যাচ্ছিলেন ১৪ জন সহকর্মীকে নিয়ে। থানা সেন্টার মসজিদের সামনে পৌঁছলে আকর্ষিক প্রাইভেট গাড়ি ও বাইক নিয়ে বেশ ক’জন সহযোগীসহ সাবেক এমপি জাফর উপস্থিত হয়ে বাদীসহ সাংবাদিকদের নানাভাবে শায়েস্তা করতে ও বিভিন্ন মামালার আসামি করবে বলে হুংকার দেন। এই হুংকারের সাথে সাথেই সাথে থাকা সহযোগীদের একজন সাংবাদিকদের পায়ের নলা কেটে পঙ্গু করার হুমকি দেন। অপর কয়েকজন চকরিয়ার যেখানেই সাংবাদিক দেখবে সেখানেই পেটানো হবে বলে চিৎকার করে হুমকি দেয়।

এ ঘটনায় বাদীসহ সংবাদকর্মীরা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে বলে চকরিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মিজবাহউল হক দাবী করেন। তিনি জানান, হুমকির পরপরই সাংবাদিকদের হত্যার উদ্দেশ্যে হামালার আশঙ্কা ছিলো। ঘটনা শুনে তাৎক্ষণিক থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী ও ওসি (তদন্ত) অরুপ কুমার চৌধুরীসহ একদল পুলিশ ঘটনস্থলে পৌঁছলে বড় ধরণের ঘটনা থেকে রক্ষা পান সাংবাদিকেরা।

থানায় জিড়ি দায়ের করা চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি এম জাহেদ চৌধুরী বলেন, ‘মঙ্গলবার বেলা সোয়া ২ টায় সহকর্মী মোহাম্মদ উল্লাহকে মারধরের পর আবারো সাংবাদিকদের উপর হুমকি ও হামলা করতে পারে তা কল্পনাও করিনি। কিন্তু সেই অবিশ্বাস্য ঘটনাই ঘটিয়েছে সাবেক এমপি জাফর ও তার সহযোগীরা। এ ব্যাপারে প্রশাসন কঠোর ব্যবস্থা না নিলে সাংবাদিকদের উপর আরো মরণঘাতী হামলা হতে পারে।’

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, ‘হুমকির ঘটনায় থানায় জিডি হয়েছে। তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে। ভবিষ্যতে সাংবাদিকদের উপর হুমকি বা হামলার ঘটনা যাতে না ঘটে সেই লক্ষ্যে প্রদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার বেলা সোয়া ২ টার দিকে সাবেক এমপি জাফর আলমের নেতৃত্বে মানবজমিন প্রতিনিধি ও চকরিয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ন সম্পদক মোহাম্মদ উল্লাহকে হত্যা চেষ্টা, পিটিয়ে জখম, মোবাইল ও নগদ টাকা ছিনিয়ে নেয়া হয়। এ ঘটনায় চকরিয়া প্রেসক্লাবে প্রতিবাদ সভায় হামলাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বিভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। ওই ঘটনায় আহত সাংবাদিক মোহাম্মদ উল্লাহ বাদী হয়ে থানায় এজাহার দায়ের করেছেন। ওই ঘটনায় সহকর্মীর পাশে দাঁড়ানোতে ক্ষিপ্ত হয়ে রাতে চকরিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতিসহ ১৫ জন সাংবাদিককে হুমকি দেয়া হয়। ##