আজ, বুধবার | ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



এ বছর সমাজসেবায় একুশে পদক পেয়েছেন দই বিক্রি করে জীবন ও জীবিকা নির্বাহ করা চাঁপাইনবাবগঞ্জের এক অতি সাধারণ জিয়াউল হক।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

এ বছর সমাজসেবায় একুশে পদক পেয়েছেন দই বিক্রি করে জীবন ও জীবিকা নির্বাহ করা চাঁপাইনবাবগঞ্জের এক অতি সাধারণ জিয়াউল হক।

তাঁকে এবং তাঁর বেশভূষা, পেশা ইত্যাদি দেখে অবাক হওয়ার মত কিছুই নাই, একজন জিয়াউল হক এভাবেই নিরবে ও নিভৃতে কাজ করে যায় এই সমাজ এবং দেশের জন্য।বাইরের চাকচিক্য তাদের একদম টানে না,তারা এরকমই হয়।

তার বাড়ি ভোলাহাট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ। তিনি ১৯৬০ সাল থেকে অদ্যাবধি মানুষের মাঝে বই, কাপড়, বাড়ি নির্মাণ সামগ্রীসহ তাঁর সমস্ত কিছু বিলিয়ে চলেছেন।

মাত্রই চতুর্থ শ্রেণি পর্যন্ত পড়তে পারা এই জিয়াউল হকের বাড়িতে প্রায় ১৫০০০ বইয়ের ১টি লাইব্রেরি রয়েছে, যা সকলের জন্য উম্মুক্ত। ইতোপূর্বে তাঁকে “সাদা মনের মানুষ” উপাধিও দেয়া হয়েছে। একুশে পদক পাওয়া আগ পর্যন্ত পুরো জেলায় তাকে একজন সাদা মনের একজন সরল ও সৎ মানুষ বলে পরিচিত ছিলেন।

মোটকথা মানুষের পরিচয় তার পথ পদবী উচ্চ ডিগ্রি পেশা বা পোশাকে নয়,মানুষের পরিচয় তার কর্ম‌ে।

তার জ্বলন্ত উদাহরণ আজকের পুরো দেশবাসীর গর্ব একজন দুই বিক্রেতা জিয়াউল হক।

শ্রদ্ধা, ভালোবাসা, শুভ কামনা নিরন্তর আপনার জন্য,এবং আপনার সুস্থ সুন্দর ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি।