আজ, বুধবার | ২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ



চকরিয়ার কাকারায় জালিয়তির মাধ্যমে প্রতিবন্ধী ও দিন মজুরের বসতভিটা জবর দখলের চেষ্টা!

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ
চকরিয়ার কাকারায় প্রতিবন্ধী পরিবার ও নিরীহ দিন মজুর জাগের হোসেনের বসতভিটার জমি জবর দখল করে উচ্ছেদ অপচেষ্টা চালাচ্ছে এক ভূমিদস্যু প্রভাবশালী জালিয়তচক্র। এনিয়ে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কক্সবাজার জেলা প্রশাসক বরাবরে অভিযোগ।
অভিযোগে জানাগেছে, চকরিয়া উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড সাকের মোহাম্মদ চর এলাকার মৃত আব্দুল মজিদ প্রকাশ আব্দুল জলিলের পুত্র জাগের হোসেন উক্ত ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শওকত উসমান এর মারফতে সরকারের বরাদ্দে একটি ঘরপ্রাপ্ত হয়। উক্ত ঘরে তার ৫ টি কন্যা সন্তান নিয়ে কোন রকম জীবন যাপন করে আসছেন। ইতিমধ্যে দূর্লোভের বশিভুত হয়ে প্রতারণা ও জালিয়তির আশ্রয় নিয়ে স্থানীয় প্রভাবশালী মরহুম আহমদ হোছনের পুত্র হাফেজ মুহিব্বুল্লাহ’র নেতৃত্বে স্থানীয় ফরিদুল আলম,শওকত ওসমান,আবুল ফজল,রফিকুল ইসলাম,সেলিম উদ্দিন ও হামিদসহ সংঘবদ্ধ একটি লাঠিয়াল বাহিনী অসহায় জাগের হোসেনের বসতভিটা ও ভিন্ন দাগের তার ১৩ কড়া জমিতে মাটি ভরাট করে জবর দখলের অপচেষ্টা চালায়। এ সময় এলাকার লোকজনের নিরীহ দিন মজুরের জমি জবর দখলের ঘটনা দৃষ্টিগোচর হলে তারা দখলদার বাহিনীকে তাড়িয়ে নিয়ে যায়। ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায় দখলবাজ চক্র। এনিয়ে ভুক্তভোগি অসহায় জাগের হোসেন বাদী হয়ে দখলবাজ চক্রের বিরুদ্ধে চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও কক্সবাজার জেলা প্রশাসক বরাবরে অভিযোগ দায়ের করেন। এতদপ্রসঙ্গে দিন মজুর জাগের হোসেন ও তার পরিবারের অপরাপর সদস্যরা বিস্তারিত তুলে ধরে কথা বলছেন।
দিন মজুর জাগের হোসেন বলেন, তার ৫টি কন্যা সন্তানের মধ্যে একজন প্রতিবন্ধী। হাফেজ মুহিবুল্লাহ জমির খতিয়ান সৃজন করে দেওয়ার আশ্বাসে রেজিস্ট্রি অফিসে নিয়ে গিয়ে জালিয়তির মাধ্যমে জমি লিখে নিয়েছে।যে জমি আজ থেকে ৮বছর পূর্বে আমার স্ত্রীর নামে হেবা মূলে রেজিস্ট্রি দিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু জালিয়তির ওই দলিল নিয়ে আমাদের বিরুদ্ধে আদালতে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রাণী করারও চেষ্টা করছে মুহিবুল্লাহ গং। তিনি প্রশাসনের কাছে আইনী সহায়তা চেয়েছেন।