আজ, মঙ্গলবার | ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ



টেকনাফে দুই কিশোরকে অপহরণ করেছে পাহাড়ের সন্ত্রাসী গোষ্ঠি। যাদের পরিবারের কাছে ইতিমধ্যে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হচ্ছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

সংবাদ দাতা মোঃ শাহেদুল ইসলাম।

টেকনাফে দুই কিশোরকে অপহরণ করেছে পাহাড়ের সন্ত্রাসী গোষ্ঠি। যাদের পরিবারের কাছে ইতিমধ্যে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার দিনগত রাত দেড় টার দিকে টেকনাফের বাহারছড়া ইউনিয়নের বড় ডেইল এলাকার একটি ফার্ণিচারের দোকান থেকে এই দুই কিশোরকে অপহরণ করা হয়। সকালে কিশোরের পরিবারের ফোন করে দাবি করা হয় ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ।

বাহারছড়া ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফরিদ উল্লাহ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অপহৃত ২ কিশোর বাহারছড়া ইউনিয়নের মাথাভাঙ্গা এলাকার জাগির হোসেনের ছেলে আবদুর রহমান (১৭) ও নোয়াখালী পাড়ার আলী হোসেনের ছেলে জোবাইর হোসেন (১৬)। দুই জনই ওই ফার্ণিচারের দোকানের কর্মচারি।

ইউপি সদস্য ফরিদ উল্লাহ জানিয়েছেন, বড় ডেইল এলাকার একটি ফার্নিচারের দোকানে এসেছে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা দুই কিশোরকে ধরে কয়েক রাউন্ড গুলি বর্ষন করতে করতে পাহাড়ের দিকে নিয়ে গেছে। সকালে মুঠোফোনের মাধ্যমে পরিবারের কাছে থেকে ১০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে সন্ত্রাসীরা।

বাহারছড়া পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক মশিউর রহমান জানিয়েছেন, বিষয়টি পরিবারের পক্ষে কেউ এ পর্যন্ত লিখিতভাবে জানাননি। এলাকার লোকজনের কাছে বিষয়টি জানার পর পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে অভিযান শুরু করেছে।

কক্সবাজার জেলা পুলিশের তথ্য বলছে, ২০২৩ সালের এক বছরে টেকনাফের পাহাড় কেন্দ্রিক অপহরণের ঘটনা ঘটে ১৩০ টি। যার মধ্যে ৬৯ জন স্থানীয় এবং ৬১ জন রোহিঙ্গা। যেখানে ৩০ জন মুক্তিপণের টাকা পরিশোধের কোন তথ্য পাওয়া না গেলে অপর ১ শত জন সকলেই মুক্তিপণ দিয়ে ছাড়া পেয়েছেন বলে ভুক্তভোগী পরিবার দাবি করে আসছে।

২০২৪ সালের প্রথম ৩ দিনে এই পাহাড়ে ৩ টি অপহরণের ঘটনা সংঘটিত হল। এর মধ্যে সোমবার (১ জানুযারি) হ্নীলা ইউনিয়নের মারিচ্যাঘোনা এলাকার অপহৃত এক কৃষককে উদ্ধার করে দুই জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার রাতে এসে অপহরণ হল ২ কিশোর।