আজ, মঙ্গলবার | ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ



চকরিয়া খুটাখালী হয়ে মায়ানমারের গরু পাচারে জড়িতদের তথ্য দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে দুইজনকে অপহরণ, পুলিশি অভিযানে উদ্ধার

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ

চকরিয়া খুটাখালী পূর্ণগ্রাম এলাকা দিয়ে মায়ানমারের গরু পাচারে জড়িতদের সন্ধান দেয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে দুইজনকে অপহরণ। পুলিশি অভিযানে উদ্ধার করা হয়েছে। ৮নং ওয়ার্ডের পূর্ণগ্রাম এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা।

এনিয়ে মোক্তার আহামদের স্ত্রী সেলিনা আক্তার (৩১) হয়ে থানায় একটি দায়ের করেছেন। এতে অভিযুক্ত করা হয়েছে; মৃত আলহাজ্ব মিয়ার পুত্র নুরুল হুদা (৫৫), আবু তাহের আজমের পুত্র এহেছান (৫০),জাফর আলমের পুত্র জসিম উদ্দিন (৪৫), মৃত জমির
উদ্দিনের পুত্র আমির উদ্দিন (৪২), আমির
হোছনের পুত্র রুহুল আমিন (৪০)সহ আরো অজ্ঞাত নামা আরো ২/৩ জনকে।
অভিযোগে জানাগেছে, খুটাখালী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের পূর্ণগ্রাম পাহাড়িয়া নির্জন এলাকা দিয়ে পেশাধারী গরু চোর ও গরু পাচারকারীরা সংঘবদ্ধ হয়ে সরকারের অগোচরে মায়ানমার হতে চোরাই পথে গরু বাংলাদেশে পাচার করে এবং বিভিন্ন এলাকায় নিয়ে যায়। গরু পাচার সহ বিভিন্ন অনৈতিক কার্যকলাপেও জড়িয়ে পড়ে। উক্ত বিষয়ে বিজিবির সদস্যগণ সংবাদ পেয়ে প্রায় ১ মাস পূর্বে পূর্ণগ্রাম এলাকায় এসে অভিযুক্তদের মাধ্যমে বাদী পক্ষের বসত ঘরের সামনে দিয়ে গরু পাচারের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং চোরা-চালানীরা গরু পাচার করার সময় তাহাদেরকে সংবাদ দেওয়ার জন্য বলে। অভিযুক্তরা রাস্তা দিয়ে গরু পাচার করার সময় মোক্তার আহামদ (৪৯) ও আবদু শুক্কুর (৪৩) স্থানীয় মেম্বারকে সাথে নিয়ে বাঁধা প্রদান করেন। উক্ত কারণে ক্ষিপ্ত হয়ে হাঁকাবকা হুমকি-ধমকি প্রদান করে।
তারই ধারাবাহিকতায় গত ১২মার্চ২০২৩ইং তারিখ রাত আনুমানিক ০৩.২৫ ঘটিকার সময় অভিযুক্তরা অবৈধ অস্ত্রশস্ত্র হাতে নিয়ে একটি অজ্ঞাত নাম্বারের মাইক্রো-হাইয়েছ যোগে পরিকল্পিতভাবে এসে বাদী বসত ঘরের দরজা জোর পূর্বক খুলে বসত ঘরে অনধিকার প্রবেশ করে । এক পর্যায়ে অভিযুক্তরা অস্ত্রের মুখে মোক্তার আহামদ (৪৯) ও আবদু শুক্কুর (৪৩)কে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে বাংলাদেশ পুলিশের জাতীয় সেবা কেন্দ্র ৯৯৯ নাম্বারে ফোন করলে চকরিয়া থানার এসআই কামারুল ইসলামের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে মোক্তার আহামদ (৪৯) ও আবদু শুক্কুর (৪৩)কে জিম্মিদশা থেকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করান।