আজ, মঙ্গলবার | ২৭শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১৪ই ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ



চকরিয়া পৌর এলাকায় আদালতের নির্দেশনা ও পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে জমি জবর দখলের চেষ্টা

চকরিয়া অফিস:
চকরিয়া পৌর এলাকায় আদালতের ১৪৪ ধারার মামলার নির্দেশনা ও পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে জমি জবর দখল চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। পৌরসভা ৩নং ওয়ার্ডের উত্তর সিকদার পাড়া (কসাইপাড়া সংলগ্ন) এলাকায় ঘটেছে এ ঘটনা। এনিয়ে জমি মালিক পক্ষের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।
অভিযোগে ও মামলার আর্জি সূত্রে জানাগেছে, পৌরসভা ৩নং ওয়ার্ডের উত্তর সিকদারপাড়া এলাকায় ২নং ওয়ার্ডের হাইস্কুল পাড়া বাসিন্দা আলহাজ¦ হাফেজ নুরুল আনোয়ারের স্ত্রী ও বহদ্দারকাটা উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারি প্রধান শিক্ষক মোছাম্মৎ জিন্নাত সুলতানার মালিকানাধীন ১৩শতক জমি রয়েছে। ওই জমি ক্রয়ের পর থেকে টিনের ঘেরা বেড়া দিয়ে শান্তিপূর্ণ ভোগ দখলেও রয়েছেন। লক্ষ্যারচর মৌজার বিএস খতিয়ান নং ৪২৩ হতে সৃজিত বিএস খতিয়ান নং ২৩০৯ এবং তৎ হইতে সৃজিত বিএস খতিয়ান নং ২৯৪৪ ও ৪২৫৩ এর বিএস দাগ নং ৫৭২৪ চুড়ান্ত প্রচার রয়েছে। শান্তিপূর্ণ ভোগ দখলে থাকাবস্থায় স্থানীয় সিকদারপাড়া ও কসাই পাড়া এলাকার কিছু দখলবাজ, ভূমিদস্যু চক্র উক্ত জমি বিভিন্ন অজুহাতে জবর দখল করার চেষ্টা করে। এনিয়ে দখলবাজদের বিরুদ্ধে জমি মালিক মোছাম্মৎ জিন্নাত সুলতানা বাদী হয়ে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। কিন্তু পুলিশ আন্তরিকতার সহীত চেষ্টা করলেও অভিযুক্তরা কর্ণপাত না করায় পরবর্তীতে ২০ ডিসেম্বর’২১ইং জমি মালিক বাদী হয়ে জমিতে ১৪৪ ধারা চেয়ে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট আদালত,কক্সবাজারে মামলা (নং এমআর ২৩৩৯/২১) দায়ের করেন। এতে অভিযুক্ত করা হয় ৩নং ওয়ার্ডের সিকদারাপাড়ার মৃত নবাব মিয়ার পুত্র বশিরুল আইয়ুব (সাবেক কাউন্সিলর), মৃত আলতাফ হোছনের পুত্র নাজেম উদ্দিন ও নাছির উদ্দিন, মৃত নছরত আলীর পুত্র মো: ইসমাইল, আছুলার পুত্র আবু ছিদ্দিক, মো: মনুর পুত্র জুবাইর, মমতাজের পুত্র শাহিন, আহমদ হোছনের পুত্র নুরুন্নবী ও নুর মোহাম্মদ, মৃত জয়নাল আবদীনের পুত্র জাহেদ উদ্দিন গং। মামলায় উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি)কে সরে জমিনে প্রতিবেদন দেয়ার এবং থানা প্রশাসনকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা করার জন্য আদালত নির্দেশনা দেন। মামলার পরও ২১ ডিসেম্বর গভীর রাত পযর্ন্ত টিনের বেড়া ভেঙ্গে ডাম্পার ট্রাক নিয়ে জমিতে মাটি ভরাট করে জবর দখলের চেষ্টা চালায়। আদালতের আদেশের আলোকে ২২ ডিসেম্বর থানার সহকারি উপপরিদর্শক মাসুদ রানা নোটিশ জারি করেন। একই সাথে আদালতে মামলার নিষ্পত্তি না হওয়া পর্যন্ত জমিতে কোন ধরণের স্থাপনা নির্মাণ না করার জন্য নির্দেশনা দেন। কিন্তু অভিযুক্তরা বিজ্ঞ আদালতের আদেশ ও পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে জমি জবর দখল কার্যক্রম অব্যাহত রাখার চেষ্টা চালাচ্ছে।
জমি মালিক মোছাম্মৎ জিন্নাত সুলতানা জানান, অভিযুক্ত আসামী এলাকায় সন্ত্রাসী ও দখলবাজ হিসেবে পরিচিত। মূলত সাবেক কাউন্সিলর বশিরুল আইয়ুবের নির্দেশনায় তার লালিত সন্ত্রাসী বাহিনীই এসব জবর দখল চেষ্টা চালায়। এমনকি অভিযুক্তরা বাদীকে বিভিন্নভাবে হুমকি ধমকি প্রদান করছে। ফলে বাদী নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন বলে জানান। তাই প্রশাসনের কাছে আইনী সহযোগিতা অব্যাহত রাখার জন্য আহবান জানান।