আজ, শুক্রবার | ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ



স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আফজল চৌধুরীর প্রচারণার গাড়িতে হামলা : রাস্তায় গাছ ফেলে ব্যারিকেড

চকরিয়া প্রতিনিধিঃ

চকরিয়ায় কৈয়ারবিল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চশমা প্রতীকে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী আফজলুর রহমান চৌধুরীর কর্মী সমর্থকরা নির্বাচনী প্রচার প্রচারণা শেষে বাড়ি ফেরার পথে রাস্তায় গাছ ফেলে বাঁধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী সুষ্টু, নিরপেক্ষ ও অবাধ নির্বাচন নিয়ে চরম শঙ্কায় রয়েছে বলে সূত্রে জানায়।

মঙ্গলবার রাতে উপজেলার কৈয়ারবিল ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের খিলছাদক এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, মঙ্গলবার রাতে
কৈয়ারবিল ইউনিয়নে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আফজলুর রহমান চৌধুরীর কর্মী সমর্থকরা ১নম্বর ওয়ার্ডের খিলছাদক ও ছদরকাটা এলাকা থেকে প্রচারণা শেষে বাড়ি ফেরার পথে ইউনিয়নের অপর স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মক্কী ইকবালের সমর্থকরা রাস্তায় গাছ ফেলে ব্যারিকেড দিয়ে বাঁধা দেন আফজল চৌধুরীর সমর্থকদের। এসময় ইকবালের সমর্থকরা উত্তেজিত হয়ে আফজল চৌধুরীর প্রচারণায় ব্যবহৃত মাইকের অটোরিক্সা গাড়ি আটকে ওই গাড়ির সীট ও নির্বাচনী ব্যানার কেটে ছিড়ে ফেলে। এনিয়ে কৈয়ারবিলে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন মুহুর্তে নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বড় ধরণের সহিংসতা আশঙ্কা করেছেন স্থানীয়রা। নির্বাচনে এ ধরণের ঘটনা নিয়ে পুরো ইউনিয়ন জুড়ে সাধারণ মানুষের মাঝে তীব্র ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে।

কৈয়ারবিল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের স্বতন্ত্র চশমা প্রতীকের চোয়ারম্যান প্রার্থী আফজলুর রহমান চৌধুরী বলেন, মঙ্গলবার রাতে কৈয়ারবিল ইউনিয়নের ১নম্বর ওয়ার্ডের খিলছাদক ও ছদরকাটা থেকে প্রচারণা শেষে ফেরার পথে অপর চেয়ারম্যান প্রার্থী মক্কী ইকবাল হোসেনের নির্দেশে তার সন্ত্রাসী কর্মী বাহিনী সড়কে গাছ ফেলে ব্যারিকেট দিয়ে দীর্ঘক্ষণ ধরে আটকে রাখে। এসময় প্রচারণায় ব্যবহৃত গাড়ীর সীট ও আমার নির্বাচনী ব্যানার পেস্টুন কেটে ফেলে তার কর্মীরা। এ ঘটনায় চকরিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও), নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও থানার ওসি’র কাছে আমার বড় ভাই অভিযোগ দায়ের করেছেন বলে তিনি জানান।
অভিযুক্ত অপর স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মক্কী ইকবাল হোসেন কাছে ঘটনার বিষয়ে বক্তব্যের জন্য তার ব্যবহৃত মুঠোফোনে একাধিক ফোন করেও কল রিসিভ না করায় তার বক্তব্যে পাওয়া যায়নি।

উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ও কৈয়ারবিল ইউপি নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ঘটনার বিষয়ে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রাথী আফজল চৌধুরীর বড় ভাই লিখিত একটি অভিযোগ দেন। অভিযোগ পেয়ে তাৎক্ষনিক ভাবে অভিযুক্ত প্রার্থীকে ফোন করে সতর্কতা করা হয়। পরে এ ধরণের কোন অভিযোগ পেলে আইনী প্রদক্ষেপ নেয়া হবে বলে তিনি জানান।##