আজ, শুক্রবার | ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ



লিংকরোডে জেলা শ্রমিকলীগ নেতা জহির সিকদার ও মেম্বার প্রার্থী কুদরত উল্লাহ গুলিবিদ্ধ!

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ

কক্সবাজার সদরের ঝিলংজা ইউনিয়নের লিংকরোড আজ শুক্রবার রাত অনুমানিক ১০টার সময় এই ঘটনা ঘটেছে। ঝিলংজা ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের বর্তমান মেম্বার ও ঝিলংজা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সেক্রেটারি মেম্বার প্রার্থী কুদরত উল্লাহ সিকদার  এবং তার বড় ভাই জেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি জহির সিকদার দুর্বৃত্তের হাতে গুলিবিদ্ধ হয়েছেন। ঘটনাস্থলে জহিরুল ইসলাম নামে আরো একজন আহত হয়েছে বলে জানা গেছে।

কুদরত সিকদারের ড্রাইভার আমিন মুঠোফোনে জানান, তাদের দুইজনকে লিংকরোড বাজারে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আমি উদ্ধার করে সিএনজি যোগে কক্সবাজার সদর হাসাপাতালে নিয়ে এসেছি।

লিংকরোড কুদরত সিকদারের অফিসে দুর্বৃত্তরা হঠাৎ এসে প্রথমে তাদের দুজনকে টার্গেট করে ককটেল নিক্ষেপ করে। এতে আশপাশের সাধারন মানুষ সরে যায়। ঠিক তখন তাদের দুজন কে ৩রাউন্ড গুলি করে দুর্বৃত্তরা। ২রাউন্ড ফাকা গুলি করে দুর্বৃত্তরা দ্রুত পালিয়ে যায় বলে জানান ড্রাইভার আমিন। কুদরত সিকদার প্রাণে বাচঁতে দৌড়ে পালিয়ে বনফুল রেষ্টুরেন্টের সামনে লুটিয়ে পড়ে। পরে সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে আমিন। দুর্বৃত্তরা মাংকি টুপি পরিহিত অস্ত্রধারী ৭-৮ জন বলে জানা গেছে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি শেখ মনীর উল গীয়াস জানান, আহত দুইজনের চিকিৎসা চলছে। ঘটনায় জড়িত কাউকে শনাক্ত করা যায় নি। বিস্তারিত খোঁজখবর নেওয়া হচ্ছে। জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
উল্লেখ্য, ভোটের আগে এমন কিছু ঘটনার আশঙ্কা প্রকাশ করে কয়েকদিন আগে নির্বাচন কর্মকর্তাকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলেন কুদরত উল্লাহ সিকদার।
প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী লিয়াকত আলীও এমন ঘটনার আশঙ্কা প্রকাশ করে পাল্টা অভিযোগ দিয়েছিলেন।
সুষ্ঠু নির্বাচন প্রক্রিয়া ভন্ডুল ও দুই প্রার্থীর মধ্যে বিরোধ লাগিয়ে দিতে তৃতীয় কোনো পক্ষ এ কাজ করেছে কিনা, তদন্তের দাবি করেছে স্থানীয় বাসিন্দারা।