আজ, শুক্রবার | ৩রা ডিসেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ



চকরিয়ায় জমি বিরোধের জের ধরে এমইএস কলেজ ছাত্র সংসদ নেতাকে গুলি করে হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড সিকদারপাড়া এলাকায় জমির বিরোধের জের ধরে মৃত আব্দুল খালেক সিকদারের ছেলে চট্টগ্রাম এমইএস কলেজ ছাত্র সংসদের সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ও পূর্ব বড় ভেওলা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রার্থী নাসির উদ্দিন নোবেল সিকদারকে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে বলে গুরুতর অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায়, পৈতৃক সূত্রে পাওয়া দীর্ঘ অর্ধশত বছর ধরে একই এলাকায় একটি জমি ভোগ করে আসছিলেন নাসির উদ্দিন নোবেল সিকদার। কিন্তু জায়গা জমির মূল্য বৃদ্ধি পাওয়ায় গত কিছুদিন ধরে একই এলাকার ভূমিদস্যু মোঃ এনাম গংরা জায়গাটি দখলে নেওয়ার চেষ্টা করে।

পরে নানা বাংধা বিপত্তির পরে স্থানীয়ভাবে সালিসি বৈঠকের মাধ্যমে মিমাংসার কথা ও হয়। কিন্তু ভূমিদস্যু মোঃ এনাম গংরা তা উপেক্ষা করে গত ১৭ আগষ্ট মঙ্গলবার বেলা ১২টার দিকে জমি জবরদখলের উদ্দেশ্যে নাসির উদ্দিন নোবেলের বর্গাচাষী মোঃ আকতার হোসেনকে মারধর করে জমি থেকে তুলে দেয়। পরে জায়গার মালিক নাসির উদ্দিন নোবেল সিকদার তার বর্গাচাষীকে মারধরের বিষয়টি জানতে পারলে কী কারণে তাকে মারধর করা হয়েছে তা জানার জন্য এনাম গংদের কাছে যান।

কিন্তু এক পর্যায়ে তর্কাতর্কি হলে এনাম গংরা নাসির উদ্দিন নোবেলের বুকে গুলিয়ে চালিয়ে দেন। পরে খবর পেয়ে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে তাদেরকেও হত্যার উদ্দেশ্যে এলোপাতাড়ি গুলি ছুটতে থাকে। এ সময় গুলিবিদ্ধ হয়ে আহত হয়েছেন অন্তত ১০ জন। আওয়ামীলীগ নেতা নাসির উদ্দিন নোবেল ইতিপূর্বে চট্টগ্রাম ওমর গণি এমইএস কলেজ ছাত্র সংসদের সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক, চট্টগ্রাম মহানগর যুবলীগ নেতা ছিলেন বলেও জানা গেছে। এ ঘটনায় আহতরা হলেন- জাফর আলম (৪৯), জাহিদুল ইসলাম (২৫), সরোয়ার হোসেন (৪০), মোহম্মদ শফি (৩৯), আজিজুল হক (৪৮), মিজানুর রহমান (৩০), আবুল কালাম (২২), নুরুল কাদের (৪৫)।

তারা সবাই একই ইউনিয়নের সিকদার পাড়া এলাকার বাসিন্দা। চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিক্যাল অফিসার (আরএমও) ডাঃ ফয়সাল জানিয়েছেন, গুলিবিদ্ধ আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদের অবস্থাও আশঙ্কাজনক হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।পূর্ববড়ভেওলা ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ারুল আরিফ দুলাল জানান, সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হওয়ার খবর পেয়ে হাসপাতালে ছুটে যাই। তবে কী কারণে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে এখনো জানা যায়নি।

মাতামুহুরী থানা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল জানান, নাছির উদ্দিন নোবেল অত্যান্ত ভালো এবং জনপ্রিয় নেতা ছিলেন। এলাকার মানুষের মানবিক নেতা হিসেবেও পরিচিত। যারা হত্যাকান্ড করেছে তারা চিহিৃত। তাদের আইনের আওতায় এনে শাস্তি দাবী করছি।এদিকে ঘটনার খবর পেয়ে কক্সবাজার-১ চকরিয়া-পেকুয়া আসনের সাংসদ আলহাজ্ব জাফর আলম বিএ(অনার্স)এমএ নিহত নাসির উদ্দিন নোবেল সিকদারের লাশ দেখতে চকরিয়া উপজেলা সাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছুটে আসেন।

তিনি বলেন, এই ঘটনায় যে বা যারা জড়িত আছে তাদের কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তথা আওয়ামিলীগ সরকার কখনো ভূমিদস্যু ও খুনিদের সমর্থন করে না। চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাকের মোহাম্মদ যুবায়ের বলেন, ঘটনা শুনেই পুলিশ পাঠানো হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে এজাহার দিলে মামলা নেয়া হবে। এরআগেই জড়িতদের ধরতে পুলিশের কয়েকটি টিমকে অভিযানে পাঠানো হয়েছে। ইতোমধ্যে ঘটনায় জড়িত হেলাল ও নাসির নামের দুজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছি।